দেখতে দেখেতে কেটে গেলো ১৭টি বছর। আজ থেকে ১৭ বছর আগে ২০০৪ সালের আজকের দিনে ঘটেছিলো বাংলাদেশের রাজনৈতিক ইতিহাসে এক ন্যাক্কারজনক ঘটনা। এদিন আওয়ামী লীগ আয়োজিত সন্ত্রাসবিরোধী মিছিলপূর্ব সমাবেশে দলটির সভাপতি এবং তৎকালীন বিরোধী দলীয় নেত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার উদ্দেশ্যে গ্রেনেড হামলা এবং গুলিবর্ষণ করে ঘাতকরা। এই ঘটনায় আওয়ামী লীগের ২৪ জন নেতাকর্মী নিহত হন এবং আহত হন প্রায় পাঁচ শতাধিক।

২১ আগস্ট ভয়াবহ গ্রেনেড হামলায় নিহতদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনা এবং আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

শনিবার (২১ আগস্ট) সকালে বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউর আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে ২১ আগস্টে নিহতদের স্মরণে নির্মিত স্মৃতিফলকে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়।

সকাল সাড়ে ৯টায় প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনার পক্ষে স্মৃতিফলকে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন দলটির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

এরপর আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতারা দলীয়ভাবে নিহতদের স্মৃতিফলকে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা নিবেদনের পর আওয়ামী লীগের বিভিন্ন ইউনিট, ছাত্রলীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগসহ দলটির বিভিন্ন সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা ২১ আগস্ট নিহতদের স্মৃতিফলকে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

২১ আগস্ট নিহতদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউতে আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের ঢল নামে। শত শত নেতাকর্মী শ্রদ্ধা নিবেদনের পাশাপাশি বিভিন্ন স্লোগান দেন।

২০০৪ সালের ২১ আগস্ট বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউতে আওয়ামী লীগের ‘সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও দুর্নীতিবিরোধী’ সমাবেশে গ্রেনেড হামলায় দলটির তৎকালীন মহিলা বিষয়ক সম্পাদক ও প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমানের সহধর্মিণী আইভি রহমানসহ ২২ জন নেতাকর্মী মারা যান। আহত হন পাঁচ শতাধিক নেতাকর্মী। আহতদের অনেকে এখনও শরীরে গ্রেনেডের স্প্লিন্টার নিয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছেন।